স্বামী ছাড়া শপিং, আফগান নারীর শিরশ্ছেদ

0

স্বামী ছাড়া শহরের ভেতরে ঢুকে শপিং করার কারণে ৩০ বছর বয়সী এক আফগান নারীর শিরশ্ছেদ করা হয়েছে। আফগানিস্তানের একদল ‘জঙ্গি’ ঐ নারীর শিরশ্ছেদ করে।

আফগানিস্তানের তালেবান অধ্যুষিত সার-ই-পল প্রদেশের প্রত্যন্ত গ্রাম লাট্টিতে এ নৃশংস হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হয়।

প্রাদেশিক গর্ভনরের মুখপাত্র জাবিউল্লাহ আমানি জানান, স্বামী ইরান থাকায় একাই শহরে এসেছিলেন ৩০ বছর বয়সী ঐ নারী। আর তখনই তিনি ‘জঙ্গিদের’ লক্ষ্যবস্তু হন।

সংবাদ সংস্থা মিডল ইস্ট প্রেস এক প্রতিবেদনে জানায়, কেনাকাটা করার জন্য পার্শ্ববর্তী বাজারে যান ঐ নারী। তালেবান নিয়ম অনুযায়ী, নিকটাত্মীয় কোনো পুরুষ ছাড়া নারীদের ঘরের বাইরে বের হওয়া নিষিদ্ধ। নারীদের কর্মক্ষেত্রে ঢোকা বা শিক্ষা গ্রহণও নিষিদ্ধ করেছে জঙ্গি সংগঠনটি। এছাড়া তালেবান নিয়ম অনুযায়ী, নারীদের বোরকা পরা বাধ্যতামূলক। তবে এ ঘটনায় নিজেদের সম্পৃক্ততার কথা অস্বীকার করেছে তালেবান।

এ মাসের শুরুতে আফগানিস্তানের দক্ষিণ কান্দাহারের বিমানবন্দরে কর্মরত পাঁচজন নারী গার্ডকে অজ্ঞাতনামা বন্দুকধারীরা গুলি করে হত্যা করে।ঘরের বাইরে কাজ করার কারণেই নারী কর্মীদের হত্যা করা হয়েছে বলে ধারণা করা হয়।

তালেবান নেতৃত্বাধীন বিদ্রোহে ১৫ বছরের চলমান সংঘর্ষে বোমা হামলা থেকে শুরু করে হত্যাকাণ্ড বা পারিবারিক নির্যাতন সবখানেই আফগান নারীরা ভুক্তভোগী। দেশটির বেশিরভাগ অঞ্চলেই নিরাপত্তা পরিস্থিতি নড়বড়ে এবং প্রতিনিয়ত ব্যাপক সহিংসতা হয়ে থাকে।

কান্দাহার গভর্নরের মুখপাত্র শামিম খপুলওয়াক বলেন, চলতি মাসের শুরুতে একটি প্রাইভেট সিকিউরিটি প্রতিষ্ঠান কান্দাহার বিমানবন্দরে নারী পর্যটক খোঁজার জন্য পাঁচ নারীকে নিয়োগ দেয়।

তিনি বলেন, বিমানবন্দরে গাড়িতে যাওয়ার সময় মোটরসাইকেলে আরোহী দুই বন্দুকধারী ঐ পাঁচ নারী এবং গাড়ি চালককে গুলি করে হত্যা করে।

২০০১ সালে আফগানিস্তানে উগ্র তালেবান সাম্রাজ্যের পতনের পর থেকে শিক্ষা গ্রহণের জন্য কঠোর সংগ্রাম করে যাচ্ছে আফগান নারীরা। তবে দুর্বল নিরাপত্তা পরিস্থিতি এবং সহিংসতা বৃদ্ধির ফলে নারী অধিকার পরিস্থিতি বিপর্যস্ত হতে পারে।

বছরের পর বছর ধরে নারী সংস্থা এবং বিদেশি দাতা সংস্থার প্রবল চাপের মুখে আফগানিস্তান এখনও নারীদের জন্য বিশ্বের সবচেয়ে কঠিনতম স্থানের একটি। নারীদের মৌলিক অধিকার বাস্তবায়ন করায় আফগানিস্তানের আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের মূল উদ্দেশ্য। সেখানে কট্টরপন্থী তালেবান জঙ্গি সংগঠন মেয়েদের স্কুল শিক্ষাগ্রহণ নিষিদ্ধ করেছে। নারীদের কর্মক্ষেত্র থেকে নিষিদ্ধ করেছে সংগঠনটি।

Share.