রাজকন্যার হাত ধরেই সৌদি নারীদের পুনর্জাগরণ

0

সৌদি আরবের নারীদের চাল-চলন, পোশাক-আশাকে যে কড়া নিয়মকানুন রয়েছে, সেই বিধি নিষেধের তোয়াক্কা না করেই এগিয়ে যাচ্ছেন সৌদি রাজকুমারী আমিরাহ আল তাবিল। নিজের যোগ্যতাবলেই তিনি অন্য সৌদি নারীদের এগিয়ে যাওয়ার জন্য পথ প্রদর্শন করছেন।

শুধু তিনি নিজে একা নন, রক্ষণশীলতার আবর্তেই যে সৌদি নারীদের বসবাস ছিল, এই সৌদি রাজকন্যা সেই স্থান থেকে বের হয়ে আসার অনুপ্রেরণা যোগাচ্ছেন সৌদি আরবের অন্যান্য নারীদেরকেও।

সৌদি নারীদের দীর্ঘদিন ধরে যে পোশাক পরার চল রয়েছে তার নাম অ্যাবায়াস। তিনি সৌদি নারীদের প্রচলিত পোশাকে আবদ্ধ নন। যথেষ্ট ফ্যাশনেবল পোশাকে দেখা যায় তাকে। তাই পশ্চিমা ধরনের পোশাক পরতেই তিনি পছন্দ করেন। তবে তার পোশাক ঠিক পশ্চিমাও নয়। উভয় পোশাকের সঙ্গেই মিল রয়েছে তার পোশাকের।

তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে পড়াশোনা করেছেন। তিনি গাড়ি চালান এবং আধুনিক জীবনযাপন করেন। তিনি এখন তার জীবনযাপনের ধরনকেই আদর্শ বলে মনে করেন। সৌদি নারীদের পুরনো বৃত্ত ভেঙে বেরিয়ে আসা উচিত বলেও মনে করেন তিনি।

প্রচলিত দৃষ্টিভঙ্গি থেকে বেরিয়ে এসে সৌদি নারীদের বড় কিছু করার অনুপ্রেরণা যোগাচ্ছেন তিনি। আর এর পেছনে রয়েছে তার দীর্ঘ পরিশ্রম ও জনকল্যাণের চেষ্টা।

বহু শতাব্দী ধরে চলে আসা রক্ষণশীল সৌদি নারীদের জীবনযাবন

৩৩ বছরের এ রাজকন্যা ইতোমধ্যেই প্রায় ৭০টি দেশ ভ্রমণ করেছেন। শুধু সৌদি আরবে নয় বিশ্বের নানা স্থানে মানবিক সংকট কাটাতে চেষ্টা করেন তিনি। এ জন্য বিশ্বের নানা স্থানে ভ্রমণ করতে হয় তাকে।

তিনি দারিদ্র্যের বিরুদ্ধে যুদ্ধজয়ের চেষ্টা করছেন। এ জন্য তার রয়েছে নিজস্ব দাতব্য সংস্থা। তিনি পশ্চিম আফ্রিকা, পাকিস্তান, সোমালিয়াসহ নানা দেশের গরিব ও দুর্গতদের সহায়তায় কাজ করে যাচ্ছেন। ব্রাইট সাইড

Share.