মাথাব্যথা, হাতে পায়ের ব্যথা,কাধের ব্যথা,পান করুন ‘ব্যথানাশক’চা।জেনে কিভাবে বানাবেন

0

ঘাড় ও কাধের ব্যথায় পান করুন ‘ব্যথানাশক’ চা। জেনে কিভাবে বানাবেনমাথাব্যথামাংসপেশি আড়ষ্টতায় ব্যথাহাতে পায়ের জয়েন্টে ব্যথা
মাথাব্যথা, হাতে পায়ের জয়েন্টে ব্যথা, মাংসপেশি আড়ষ্টতায় ব্যথা, ঘাড় ও কাধের ব্যথায় অনেকেই কাবু হয়ে পড়েন।এই ধরনের ব্যথাগুলো দীর্ঘ মেয়াদী হয়ে থাকে।একবার শুরু হলে সহজে পিছু ছাড়তে চায় না।

আবার এইধরনের ব্যথার পেছনে এই ব্যস্ত যুগে ব্যয় করার মতো সময়ও হয়ে উঠে না। অনেকেই ব্যথানাশক ওষুধ খেয়ে এই ব্যথা কমিয়ে থাকেন। কিন্তু ব্যথানাশক ওষুধের রয়েছে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া যা দেহের জন্য অনেক খারাপ।

তাই এই সকল শারীরিক ব্যথা দূর করতে প্রাকৃতিক উপায় অবলম্বন করাই ভালো। ভাবছেন এই ব্যথা দূর করতে কী করা যায়? চলুন তবে দেখে নেয়া যাক এক ধরনের ব্যথানাশক চা তৈরির পদ্ধতি যা দূর করবে শারীরিক দীর্ঘমেয়াদী ব্যথা।

যা যা লাগবে:
২ কাপ পানি
২ চা চামচ চা পাতা
১ চা চামচ তাজা আদা কুচি
২ টি এলাচি (ছেঁচে নেয়া)
১/৪ চা চামচ দারুচিনি গুঁড়ো
১/২ কাপ বাদাম দুধ (বাদাম দুধ না পেলে সাধারণ গরুর দুধ নিতে পারেন)
১/৪ চা চামচ হলুদ গুঁড়ো বা সামান্য কাঁচা হলুদ বাটা
২ চা চামচ মধু

চা তৈরির পদ্ধতি: চুলায় একটি পাত্রে দুই কাপ পানি গরম হতে দিন। পানি গরম হলে এতে আদা কুচি, হলুদ গুঁড়ো/বাটা, দারুচিনি ও এলাচি দিয়ে হালকা আঁচে ১০ মিনিট ফুটতে দিন। ১০ মিনিট ফুটে পানির রঙ হলদেটে হয়ে এলে এতে চা পাতা ছেড়ে দিয়ে ২ মিনিট ফুটিয়ে নিন।অপর একটি পাত্রে দুধ ফুটিয়ে নিন।এবার চুলা থেকে নামিয়ে গরম গরম দুধ ঢেলে ঘন ঘন নেড়ে চায়ে মিশিয়ে নিন। কাপে চা ছেঁকে নিয়ে এতে মধু মেশান। গরম গরম পান করুন এই ব্যথানাশক চা প্রতিদিন ১ কাপ। এতে দীর্ঘমেয়াদী ব্যথা দূর হবে।

Share.