প্রধানমন্ত্রী ছাত্রলীগের সাবেক নেতাদের সম্মানজনক ক্রেস্ট দিলেন

0

১৯৭২ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের সম্মাননাসূচক ক্রেস্ট দিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মঙ্গলবার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ছাত্রলীগের ৬৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সংগঠনটির সাবেক নেতাকর্মীদের নিয়ে পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে এ সম্মাননাসূচক ক্রেস্ট দেন শেখ হাসিনা।

ক্রেস্ট পেলেন যাঁরা

১৯৭২-৭৩ সালের ছাত্রলীগ সভাপতি ও বর্তমান মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের নেতা ইসমত কাদের গামা ক্রেস্ট নিয়েছেন। ১৯৭৭-৮১ ছাত্রলীগের সভাপতি ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের মঞ্চে থাকলেও ক্রেস্ট নেননি। তাঁর কমিটির সাধারণ সম্পাদক বাহলুল মজনুন চুন্নু অনুষ্ঠানে ছিলেন না।

১৯৮১-৮৩ সালের সভাপতি ও বর্তমান বিএমএর সভাপতি ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন ক্রেস্ট নেন। একই কমিটির সাধরণ সম্পাদক খ ম জাহাঙ্গীরও ক্রেস্ট নেন।

১৮৮৩-৮৫ সালের সভাপতি আব্দুল মান্নান, একই কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক ক্রেস্ট নেন।

১৯৮৬-৮৮ সালের সভাপতি সুলতান মো. মনসুর আহম্মেদ অনুষ্ঠানে ছিলেন। তবে তাঁর কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান ক্রেস্ট নেন।

১৯৮৮-৯২ সালের সভাপতি শাহে আলম ও সাধারণ সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, ১৯৯২-৯৪ সালের সভাপতি মাইনুদ্দিন হাসান চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক ইকবালুর রহিম, ১৯৯৪-৯৮ সালের এ কে এম এনামুল হক শাহিন ও সাধারণ সম্পাদক ইসহাক আলী খান পান্না, ১৯৯৮-২০০২ সালের ছাত্রলীগের সভাপতি বাহাদুর বেপারী, সাধারণ সম্পাদক অজয় কর খোকন, ২০০২-০৬ সালের লিয়াকত শিকদার ও সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম বাবু, ২০০৬-১১ কমিটির সভাপতি মাহমুদ হাসান রিপন ও সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুল হায়দার রোটন ক্রেস্ট নেন।

এছাড়াও ২০১১-১৫ কমিটির সভাপতি এইচ এম বদিউজ্জামান সোহাগ ক্রেস্ট নেন। তবে তাঁর কমিটির সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকী নাজমুল আলম অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন না। —নতুনসময়

Share.