ত্বকের যতে ডিমের উপকারিতা

0

ডিমে রয়েছে ভিটামিন এ, ভিটামিন বি এবং প্রোটিন- যা ত্বকের যতেœ বেশ কার্যকর। ত্বক ভেতর থেকে সুন্দর করার পাশাপাশি বাহ্যিক রূপচর্চার ক্ষেত্রেও ডিম ব্যবহার করা যায়।

রূপচর্চাবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটের প্রতিবেদনে জানানো হয়, ত্বক এক্সফলিয়েট করা এবং ত্বকে আর্দ্রতা ধরে রাখার জন্য ডিম ব্যবহার করা যায়।

শরীরের নানান পুষ্টির যোগান দেয় ডিম। আর শারীরিক সুস্থতার ছাপ পড়ে ত্বকেও। কারণ বাহ্যিক রূপচর্চার তুলনায় ভেতর থেকে পুষ্টি যোগানো গেলে তা আরও কার্যকর হয়।

ডিমের আয়রনের সহায়তায় লহিত রক্ত কণিকা ত্বকে অক্সিজেন সরবরাহ করে। ডিমের সেলেনিয়াম ত্বকের বাইরের অংশকেও ক্ষতির হাত থেকে বাঁচায়। তাছাড়া এর ভিটামিন এ ত্বকের কোষ গঠনে সাহায্য করে।

ত্বক তারুণ্যদীপ্ত রাখতে উপযোগী জিঙ্ক, এটিও রয়েছে ডিমে। সকালের নাস্তায় ভিটামিন ডি সমৃদ্ধ ডিম ত্বক ভেতর ও বাইরে থেকে সুন্দর রাখতে সাহায্য করে।

ডিম দিয়ে তৈরি ফেইস মাস্ক: ডিম দিয়ে ঝটপট ব্যবহার্য কিছু ফেইসপ্যাক তৈরি করা যায়। সব থেকে সহজ হল, ডিমের সাদা অংশ আলাদা করে ফেটে, ত্বকে মেখে ১০ মিনিট অপেক্ষা করে ধুয়ে ফেলতে হবে। চাইলে এই মাস্কটি ‘পিল অফ মাস্ক’ হিসেবেও ব্যবহার করা যায়। কারণ ডিমের সাদা অংশ শুকিয়ে ত্বকের উপর একটি আস্তরণ তৈরি করে যা ‘পিল অফ মাস্ক’য়ের মতো কাজ করে।

ডিমের সাদা অংশ আলাদা করে ফেটতে হবে, এসময় এর সঙ্গে এক চা-চামচ লেবুর রস মিশিয়ে নিতে হবে। অনবরত ফেটতে হবে যতক্ষণ না ফোমের মতো মিশ্রণ তৈরি হয়। এর সঙ্গে ঘরে তৈরি টক দৈ মিশিয়ে নিতে হবে এক চামচ। মুখে মাস্ক মেখে কিছুক্ষণ অপেক্ষা করে বেসন দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। সাবান ব্যবহার না করাই ভালো। শেষে মুখে গোলাপ জল ছিটিয়ে নিন।

Share.