চেহারা সুন্দর হওয়ায় বান্ধবীর আক্রমণের শিকার তরুণী!

0
ছবিটি সার্জারির পর এবং আক্রমণের আগে তোলা। সার্জারি করে অসাধারণ সুন্দরী হয়েছিলেন তিয়ান।

 

সম্প্রতি প্লাস্টিক সার্জারি করে চেহারা সুন্দর করেছেন চীনা তিয়ান তরুণী। সু্ন্দর চেহারার জন্য মানুষের কাছে প্রশংসাও পাচ্ছেন তিনি। তবে বিষয়টি তার অন্তরঙ্গ বান্ধবী হু মেনে নিতে পারছেন না। তিয়ান তার চেয়ে সুন্দরী হোক এটা কোনোভাবেই চান না হু। তাই রাগে অন্ধ হয়ে তিয়ানের ‍মুখে আঘাত করে চেহার বিকৃত করে দিয়েছেন ওই তিনি।

বান্ধবীর আক্রমণের শিকার হয়ে এখন হাসপাতালে আছেন তিয়ান। চীনের জনপ্রিয় সংবাদ মাধ্যম পিপলস ডেইলি সংবাদটি ফলাও করে প্রকাশ করেছে।

জানা গেছে, দুই বান্ধবী প্রায় ৫ বছর ধরে এক সঙ্গে বসবাস করছিলেন। এমনকি একরুমেও অনেকদিন থেকেছেন তারা। এত বন্ধুত্ব থাকার পরও এমন বাজে ঘটনা ঘটে গেছে।

আগে থেকেই চেহারা নিয়ে দুই বান্ধবীর মধ্যে বিতর্ক লেগে থাকতো। দুজনই মনে করতেন নিজে বেশি সুন্দরী। কেউ কারো কাছে হার মানতেন না। বান্ধবী হুয়ের চেয়ে বেশি সুন্দর হওয়ার জন্য কিছুদিন আগে তিয়ান প্রায় সাত লাখ টাকা খরচ করে মুখের সার্জারি করান। সার্জারির পর চেহারা আরো সুন্দর হয় ওঠে।

এতে হু বিপদে পড়ে যায়। কারণ, এবার তিনি বান্ধবী তিয়ানের চেহারার সঙ্গে কোনোভাবেই টক্কর দিতে পারবেন না। তিয়ান এখন অসাধারণ সুন্দরী। তাহলে কি তিনি সৌন্দর্যে তিয়ানের নিচে পড়ে থাকবেন? না, তা হয় না। যেভাবেই হোক তিয়ানকে তার চেয়ে সুন্দরী হতে দেওয়া যাবে না।

আক্রমণের পর মিডিয়ার সামনে কথা বলছেন তিয়ান। বান্ধবী হু তার মুখে আঘাত করে চেহারা বিকৃত করে দিয়েছে।

এসব ভেবে হিংসা বশত তিয়ানের সঙ্গে ঝগড়া বাঁধিয়ে দেন হু। এক সময় ‍সুযোগ বুঝে তিয়ানের মুখে আঘাত করেন তিনি। সেই আঘাতে রক্তাক্ত হয়ে যায় তিয়ানের মুখ। তার চেহারা বিকৃত হয়ে যায়। এখন আহত তিয়ানকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

বান্ধবীর এমন আক্রমণের শিকার হয়ে তার উপর খুবই রেগে আছেন তিয়ান। চীনের স্যাটেলাইট টেলিভিশন জিজিংকে তিনি বলেন, ‘সে দেখতে বৃদ্ধদের মতো ও কুৎসিত। সে আমাকে ইচ্ছাপূর্বক আঘাত করেছে, যেন আমাকেও দেখতে কুৎসিত লাগে এবং আমাকে আবার বিপুল টাকা খরচ করে সার্জারি করাতে হয়।’

হু তার দোষ শিকার করেছেন বটে। কিন্তু তিয়ানকেও দোষ দিয়েছেন। তিনি জানান, শুধু তিনিই নন, তিয়ানও তাকে আঘাত করেছন। অকথ্য ভাষায় গালিও দিয়েছেন। তার পরিবারের অর্থনৈতিক অবস্থা নিয়েও অপমান করতে ছাড়েননি তিয়ান।

তবে ইচ্ছাকৃতভাবে তিয়ানের চেহারা বিকৃত করার জন্য তার মুখে আঘাত করেছেন কিনা জানতে চাইলে সে বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি হু।

এ ঘটনায় তিয়ান থানায় মামলা করেছেন। পুলিশ জানিয়েছেন, মামলার তদন্ত চলছে। তদন্ত অনুযায়ী পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

Share.